× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ২৬ মে ২০২০, মঙ্গলবার

ফেক ছবি শেয়ার করায় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়’র বিরুদ্ধে মামলা কলকাতা পুলিশের

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১১ মে ২০২০, সোমবার, ১১:০১

এবার ফেক ছবি শেয়ার করায় ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে মামলা করেছে কলকাতা পুলিশ। গত ৮ মে ফেসবুক ও নিজের টুইটারে কয়েকজনের সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহার পানাহারের একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন। সেই ছবির এক ব্যাক্তিকে বাবুল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাই কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় বলে দাবি করেছেন। ছবিটি ফেসবুক ও টুইটারে শেয়ার করে বাবুল সুপ্রিয় লিখেছেন, এটা হলো রাজ্যের বর্তমান মুখ্যসচিবের সঙ্গে মাননীয় মুখ্যমন্ত্রীর ভাই কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি আরও লিখেছেন, পানাহার ভাল। তবে ভাইরাল এই ছবিটি অনেক প্রশ্ন তুলে ধরেছে। ওরা কারা। এটা নিশ্চিতভাবেই একটি সাধারণ ছবি নয়।
বাবুল টুইটারে এই ছবিটি শেয়ার করার পরই রাজ্য রাজনীতিতে তৈরি হয়েছে সোরগোল। শেষ পর্যন্ত রবিবার কলকাতা পুলিশের সাউথ ডিভিশনের ডেপুটি পুলিশ কমিশনারের টুইটারে বলা হয়েছে, সোস্যাল মিডিয়ায় ঘুরে বেড়ানো পোস্টটি ফেক। সেইসঙ্গে সঙ্গে যে তথ্য দেয়া হয়েছে তাও মিথ্যা। এর বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এবং আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। তবে বাবুলের বিরুদ্ধে ডিজিটাল আইনে মামলা করা হয়েছে কিনা তা স্পষ্ট করে বলা হযনি। অবশ্য কলকাতা পুলিশের এক আধিকারিক জানিযেছেন, রবিবার সকালে কালীঘাট থানায় এ ব্যাপাওে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। সেটিকে কলকাতা পুলিশের সাইবার সেলে পাঠানো হয়েছে। কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় মমতার তৈরি তৃণমূল কংগ্রেসের জয়হিন্দ বাহিনীর রাজ্য শাখার সভাপতি। এক বিবৃতিতে কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেচেন, ছবিটিতে আমি কোনও ভাবেই নেই। কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার একজন দায়িত্ববান মন্ত্রীর পক্ষে এমন মিথ্যার তীব্র নিন্দা করছি। একই সঙ্গে এই ধরণের কাজের তীব্র বিরোধীতা করছি। আসলে এই পোস্টের মাধ্যমে বাবুল সুপ্রিয় একজন রাজনীতিবিদ এবং একজন মন্ত্রী হিসেবে নিজের ব্যর্থতা এবং নিরাপত্তাহীনতাকেই প্রমাণ করলেন। উল্লেখ্য, কলকাতা ও রাজ্য পুলিশের পক্ষ থেকে বারে বারে ফেক নিউজ সম্পর্কে সতর্ক থাকা এবং নিশ্চিত না হয়ে ফেক নিউজ শেয়ার করা থেকে সকলকে বিরত থাকার জন্য আবেদন করেছে। ইতিমত্যেই গত ৪০ দিনে প্রায় দুশোর বেশি ব্যাক্তিকে পুলিশ ফেক নিউজ ছাড়ানো ও শেয়ার করার অভিযোগে মামলা করেছে এবং গ্রেপ্তার করেছে। এবার সেই তালিকায় যোগ হলো একজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর নাম।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর