× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ৭ জুন ২০২০, রবিবার

পর্দা কেলেঙ্কারির দুই আসামির জামিন হয়নি হাইকোর্টেও

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৯ মে ২০২০, মঙ্গলবার, ৮:৪৪

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আলোচিত পর্দা কেলেঙ্কারির ঘটনায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় আসামি আবদুল্লাহ আল মামুন ও মুন্সী সাজ্জাদ হোসেনকে জামিন দেননি হাইকোর্ট। মঙ্গলবার  হাইকোর্টের বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেনের ভার্চুয়াল বেঞ্চ তাদের জামিন নামঞ্জুর করে আদেশ দেন।

আদালতে আজ ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে আসামিদের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট এ এম আমিন উদ্দিন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ড. মো. বশির উল্লাহ। দুদকের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট শাহীন আহমেদ।

এর আগে মামলার দুই আসামি মেসার্স অনিক ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী আবদুল্লাহ আল মামুন ও জাতীয় বক্ষব্যাধী হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মুন্সী সাজ্জাদ হোসেন নিম্ন আদালতে জামিন না পেয়ে উচ্চ আদাল হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন। উচ্চ আদালতও আজ তাদের জামিন আবেদন খারিজ করে দিলেন।

এর আগে ২০১৯ সালের ২৭শে নভেম্বর পর্দা কেলেঙ্কারির ঘটনায় দুদকের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়। ফরিদপুরের জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মামলাটি করেন দুদকের প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মামুনুর রশীদ চৌধুরী।মামলায় আসামি করা হয় সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারসহ হাসপাতালে সে সময়ে দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিদের। আসামিরা হলেন, মেসার্স অনিক ট্রেডার্সে স্বত্বাধিকারী আবদুল্লাহ আল মামুন, মেসার্স আহমেদ এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মুন্সী ফররুখ আহমেদ, জাতীয় বক্ষব্যাধী হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মুন্সী সাজ্জাদ হোসেন, ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাবেক তত্বাবধায়ক ডা. গনপতি বিশ্বাস শুভ, ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কনসালটেন্ট ডা. মিনাক্ষী চাকমা এবং ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাবেক প্যাথলজিস্ট ডা. এ এইচ এম নুরুল ইসলাম।।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর