× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ৭ জুন ২০২০, রবিবার

মমেকের নতুন ভবন কোভিড হাসপাতাল হিসেবে পরিপত্র জারি

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার, ময়মনসিংহ থেকে | ২০ মে ২০২০, বুধবার, ৭:১৬

সকল জল্পনা কল্পনার অবশেষে ঘটিয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (মমেকহা) নতুন ভবনকে কোভিড হাসপাতাল হিসাবে পরিপত্র জারি করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ চিত্তরঞ্জন দেবনাথআজ বিকালে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, গতকাল মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নতুন ভবনকে কোভিড হাসপাতাল করার জন্য একটি পরিপত্রটি পেয়েছেন। এর আলোকে আজ বুধবার পরিপত্রের আদেশটি বাস্তবায়নে ২টি সভাও করেছেন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর মচিমহার নতুন ভবনকে কোভিড হাসপাতাল হিসাবে পরিপত্ zজারি করার বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ) ময়মনসিংহ জেলা শাখার পক্ষ থেকে সভাপতি ডাঃ মতিউর রহমান ভুইয়া  ও সাধারণ সম্পাদক ডা. এইচ এ তারা গোলন্দাজ এক বিবৃতিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, গৃহায়ন ও গণপুর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এমপি,  বিভাগীয় কমিশনার করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ও প্রতিরোধ সংক্রান্ত জেলা কমিটির সুযোগ্য আহবায়ক জেলা প্রশাসক মো. মিজানুর রহমান, সদস্য সচিব সিভিল সার্জন ডা. এবিএম মশিউল আলম, এই কমিটি অন্যতম সদস্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. চিত্ত রঞ্জন দেবনাথসহ সকল সদস্য ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়য়েছেন। ডাঃ তারা গোলন্দাজ বলেন, বিএমএ সহ ময়মনসিংহের ডাক্তার সমাজ নতুন ভবনে কোভিড-১৯ হাসপাতাল করার দাবী জানিয়ে আসছিলাম। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, সকলের সহযোগিতায় ময়মনসিংহ বিভাগে কোভিড-১৯ আক্রান্ত চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী ও বৃহত্তর ময়মনসিংহের সাধারণ মানুষ একটি মানসম্মত চিকিৎসা সেবা পেতে যাচ্ছে। আশা করছি অতি দ্রুততম সময়ের মধ্যে এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করে ময়মনসিংহ বিভাগের কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার পথ প্রশস্ত করবেন। করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ও প্রতিরোধ সংক্রান্ত জেলা কমিটির সভায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের   নতুন ভবন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত  রোগী ও
পুরাতন ভবন সাধারণ  রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছিল।
বিএমএ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) এর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও বিভাগীয় কোভিড-১৯ এর মনিটরিং সেলের সমন্বয়ক ময়মনসিংহ ডা. এইচ এ গোলন্দাজ তারা জানান, এতে চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীসহ ময়মনসিংহের করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার আর কোন ঘাটতি থাকবে না। তিনি বলেন, করোনা রোগীদের সবচেয়ে জরুরী প্রয়োজন ছিল সেন্ট্রাল অক্সিজেন সাপ্লাাই। যা চরপাড়া হাসাপাতালের নতুন ভবনে বিদ্যমান রয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর