× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ২ জুলাই ২০২০, বৃহস্পতিবার

লকডাউনের মধ্যেই ভারতে চালু হচ্ছে রেল ও বিমান পরিষেবা

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ২৪ মে ২০২০, রবিবার, ২:৪৭

লকডাউনের মধ্যেই ভারতে চালু হচ্ছে রেল ও বিমান পরিষেবা। তবে আন্তর্জাতিক যাত্রী বিমান পরিষেবা আপাতত বন্ধই থাকছে। বন্ধ থাকছে বাংলাদেশের সঙ্গে আন্তর্জাতিক দুটি ট্রেনও। ভারতের বেসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী জানিয়েছেন, ২৫ মে থেকে দেশের অভ্যন্তরে বিমানে যাত্রী পরিষেবা চালু হচ্ছে। সব বিমানবন্দর এজন্য প্রস্তুত বলে জানা গেছে। বিমানের পাশাপাশি ভারতীয় রেলও ১লা জুন থেকে যাত্রী ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে। তবে আম্ফান ঘূর্ণিঝড়ে বিধ্বস্ত পশ্চিমবঙ্গে যাতে কয়েকদিন বিমান ও রেল পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়, সেজন্য রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। রেল সূত্রে জানা গেছে, প্রথম পর্যায়ে অবশ্য প্রতিদিন ২০০ যাত্রীবাহী ট্রেন চালানো হবে।
আপাতত শুধু নন এসি ট্রেন চলবে। ইতিমধ্যেই এই ট্রেনের জন্য অনলাইনে এবং স্টেশনে স্টেশনে টিকিট দেবার ব্যবস্থা হয়েছে। যাত্রীবাহী এই ট্রেন চালু হলে বিভিন্ন রাজ্যে আটকে থাকা মানুষ ঘরে ফিরতে পারবেন বলে মনে করা হচ্ছে। অবশ্য ভারতীয় রেলওয়ে ইতিমধ্যেই অভিবাসী শ্রমিকদের ঘরে পৌঁছিয়ে দেবার জন্য শ্রমিক স্পেশাল চালাচ্ছে। এছাড়াও নয়াদিল্লির সঙ্গে ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের রাজধানীতে ১৫ জোড়া ট্রেন চালানো শুরু করেছে দিন দশেক আগে। এবার পুরোদমে যাত্রী ট্রেন চলাচল শুরু করবে। চতুর্থ দফায় লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হলেও নিয়ম-কানুন অনেক শিথিল করা হয়েছে। অথচ গত ২৪ মার্চ লকডাউন চালু হবার শুরু থেকে ভারতে যাত্রী ট্রেন চলাচল যেমন বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল তেমনি অভ্যন্তরীণ বিমান চলাচলও বন্ধ করার ঘোষণা দেয়া হয়েছিল। তার দু’দিন আগেই বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল সব আন্তর্জাতিক বিমানের উড্ডয়ন। তখন থেকে এতদিন কোনও যাত্রী বিমান চলাচল করেনি। একমাত্র পণ্য পরিবহন এবং জরুরি প্রয়োজনে কিছু বিমান চলেছে এই সময়ের মধ্যে। তবে বিভিন্ন রাজ্য থেকে মানুষের যাতায়াতের জন্য বিমান ও ট্রেন চালানোর জন্য সরকারের উপর চাপ তৈরি হয়েছিল। দুটি ক্ষেত্রেই যাত্রীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা মেনে চলার নির্দেশ জারি করা হয়েছে। মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। লাল জোনের কাউকে ট্রেনে বা বিমানে উঠতে দেয়া হবে না বলে সরকারিভাবে জানানো হয়েছে। জানা গেছে, স্টেশনে এবং বিমানবন্দরে পর্যাপ্ত সময় নিয়ে যেতে হবে। সেখানে একদফা স্বাস্থ্য পরীক্ষার পরই যাত্রীদের উঠতে দেয়া হবে। বিমান মন্ত্রক সূত্রের খবর, আগামী তিন মাসের জন্য অভ্যন্তরীণ বিমানের জন্য ভাড়া নির্ধারিত করে দিয়েছে সরকার। জানা গেছে, সোমবার থেকে অভ্যন্তরীণ বিমান পরিষেবা চালু হলেও স্বাভাবিক সংখ্যার মাত্র এক তৃতীয়াংশই আপাতত চলবে। সর্বশেষ খবর, বিমান চলাচল মন্ত্রী জানিয়েছেন, জুন মাসের মাঝামাঝি থেকে আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলও চালু করে দেওয়া হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর