× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ৪ জুলাই ২০২০, শনিবার

‘বোলারদের জন্য কঠিন সময় আসছে’

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ৩ জুন ২০২০, বুধবার, ৭:০৮

করোনা ভাইরাসের কারণে বলে লালা বা থুতু ব্যবহার নিষিদ্ধ করতে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। এ কারণে করোনা পরবর্তী সময়টা বোলারদের জন্য খুব চ্যালেঞ্জিং হবে বলে মনে করেন পাকিস্তানের পেস কিংবদন্তি ওয়াকার ইউনুস। তিনি বোলার ও ব্যাটসম্যানদের মধ্যে একটা সামঞ্জস্য চান। একই কথা জানালেন অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান স্টিভ স্মিথ। ব্যাটসম্যানরা যেন বেশি সুবিধা না পায় সেদিকে খেয়াল রাখতে আইসিসিকে অনুরোধ করেছেন তিনি।
বর্তমানে পাকিস্তানের বোলিং কোচের দায়িত্বে থাকা ওয়াকার ইউনুস বলেন, ‘যখন মাঠে ক্রিকেট ফিরবে, ব্যাটসম্যানদের চেয়ে বোলাররা বেশি ভুগবে। প্রথমত তারা বল শাইনিংয়ে লালা ব্যবহার করতে পারবে না। যা তাদের পারফরম্যান্সে প্রভাব ফেলবে। দ্বিতীয়ত, বল দূষণমুক্তকরণ বোলারদের জন্য সমস্যা তৈরি করবে আর ব্যাটসম্যানদের সুবিধা দেবে।
বল সুইং না করলে খেলার ব্যালেন্স বাজেভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। আইসিসিকে অবশ্যই বিকল্প উপায় নিয়ে ভাবতে হবে। যাতে বোলার ও ব্যাটসম্যানদের মাঝে ভারসাম্য থাকে।’ আইসিসি অবশ্য ভিন্ন উপায়ে বল উজ্জ্বল করার কথা বলছে। মোম জাতীয় বস্তু ব্যবহারের কথা ভাবা হচ্ছে। কিন্তু সেটা বোলারদের কতটা উপকারে আসবে তা বলা মুশকিল। বিষয়টি নিয়ে উদ্বিগ্ন সব পেসারই। অস্ট্রেলিয়ার গতিতারকা মিচেল স্টার্ক গত সপ্তাহে হতাশা প্রকাশ করে বলেন, ‘বলে লালা ব্যবহার বন্ধ হয়ে গেলে ক্রিকেট বিরক্তিকর হয়ে উঠবে। কেউ খেলা দেখবে না।’
এবার অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান স্টিভেন স্মিথ বললেন, ‘বলে থুতু ব্যবহার করতে না পারাটা বোলারদের অসুবিধায় ফেলবে বলে মনে করি আমি। একজন ব্যাটার হয়েও আমি চাই ব্যাটে বলে একটা ভারসাম্য থাকুক। আমি মনে করি খেলার জন্য এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। বিষয়টাতে ন্যায্যতা রাখতে আমাদের আরেকটি সমাধান নিয়ে আসতে হবে। বোলাররা কিছুই করতে পারছে না এটা দেখতে নিশ্চয়ই আপনার ভালো লাগবে না।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর