× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ১৩ জুলাই ২০২০, সোমবার

হাসপাতালে চিকিৎসা না পেয়ে রোগীর মৃত্যু, সিলেটে ‘কফিন মিছিল’

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে | ৬ জুন ২০২০, শনিবার, ৯:২৭

হাসপাতালে চিকিৎসা না পেয়ে রোগীর মৃত্যুর ঘটনায় সিলেটে প্রতিবাদী ‘কফিন মিছিল’ হয়েছে। বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের উদ্যোগে শনিবার বিকেলে এই মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি দরগাহ এলাকা থেকে শুরু হয়ে নগরীর চৌহাট্রা পয়েন্টে এসে সমাবেশে মিলিত হয়।

মিছিলের আয়োজক পাবলিক বয়েজ’র সভাপতি মিফতাহ সিদ্দিকী জানান- চিকিৎসা পাওয়া নাগরিক অধিকার। কিন্তু করোনার সময়ে সিলেটের সরকারী, বেসরকারী হাসপাতালে ঘুরেও রোগীরা চিকিৎসা পাচ্ছে না। এমনকি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ গেইট পর্যন্ত খুলেনি। এ কারনে আমরা সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে ‘প্রতিকী কফিন’ মিছিল করেছি।

তিনি বলেন- এখন থেকে আমরা সতর্ক থাকবো।
সিলেটে যে হাসপাতাল রোগী ভর্তি করবে না, কিংবা চিকিৎসা সেবা বঞ্চিত করবে আমরা সেখানে গিয়ে অবস্থান করবো। তিনি বলেন- সিলেটে ইতিমধ্যে চিকিৎসা না পেয়ে যে কয়েকটি মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে সেগুলো অমানবিক।

এদিকে- কফিন সামনে নিয়ে চৌহাট্রা পয়েন্টে আয়োজিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মিফতাহ সিদ্দিকী। উই আর ন্যাশনালিস্টের সভাপতি আবু সালেহ মো. তাহেরের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- বৃহত্তর মদিনা মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এমদাদুল হক স্বপন, ইসলামপুর সমাজ কল্যান সংস্থার সভাপতি মাসুক আহমদ, উই আর ন্যাশনালিস্টের সহ সভাপতি দুলাল আহমদ, সৈয়দ আমির আলী, ক্ষ্যাপা তারুন্যের সহকারী সমন্বয়ক ফয়েজ আহমদ বেলাল, নোটারী ক্লাব অফ সিলেট অফ গ্যালাক্সির সেক্রেটারী হাসান আহমদ, হেল্পিং হ্যান্ডস সিলেটের সহ সভাপতি ময়নুল আহমদ, সুয়েব আহমদ, নাগরিক অধিকার ও পরিবেশ সুরক্ষা আন্দোলনের সভাপতি আব্দুল হাসিব, ন্যাশনালিস্ট অনলাইন এক্টিভিটিস ফোরামের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্ঝর রায়, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ছাত্র যুব ফ্রন্ট সিলেট মহানগরের সাধারন সম্পাদক মুন্না ঘোষ সহ আরো অনেকে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Mohammed Alam
৬ জুন ২০২০, শনিবার, ১০:০৬

Should raise everyone voice.tremendu job.

অন্যান্য খবর