× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার

করোনা আক্রান্তদের পশুর চেয়েও খারাপভাবে চিকিৎসা করা হচ্ছে : সুপ্রিম কোর্ট

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১২ জুন ২০২০, শুক্রবার, ৯:৪৭

করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা, মৃতদেহের প্রতি অসংবেদী আচরণ, নমুনা পরীক্ষা নিয়ে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট শুক্রবার তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। পশ্চিমবঙ্গ-সহ চার রাজ্যের কাছে স্টেটাস রিপোর্ট তলব করেছে আদালত। অন্য তিন রাজ্য হল দিল্লি, মহারাষ্ট্র ও তামিলনাডু। একই সঙ্গে ভারত সরকারের কাছ থেকেও স্টেটাস রিপোর্ট চাওয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, রাজ্যের হাসপাতালগুলিতে কোভিড-১৯ আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যবস্থা ও পরিকাঠামো সম্পর্কে চার রাজ্যকে বিস্তারিত রিপোর্ট হলফনামা দিয়ে আদালতকে জানাতে হবে। বিচারপতি অশোক ভূষণের নেতৃত্বাধীন তিন বিচারপতির বেঞ্চ শুক্রবার এই নির্দেশ দিয়েছেন। একটি সুয়োমটো মামলার প্রেক্ষিতে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত রিপোর্টের উল্লেখ করে এদিন সুপ্রিম কোর্ট কঠোর মন্তব্য করেছেন। করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার বেহাল দশা প্রসঙ্গে এ দিন তিন বিচারপতির বেঞ্চ মন্তব্য করেছেন, হাসপাতালগুলিতে চিকিৎসা পরিকাঠামোর অভাব এবং কর্তৃপক্ষের গয়ংগচ্ছ মনোভাবের ফলে রোগীরা যন্ত্রণার কাঁদছে, কিন্তু তাদের দেখার কেউ নেই।
এরকম চলতে থাকলে হাসপাতালগুলিতে তো দ্রুত বেডগুলি খালি হতে থাকবে (রোগীদের মৃত্যু বাড়বে)। গাদাগাদি করে মৃতদেহ ফেলে রাখা প্রসঙ্গে বলা হয়েছে, বহু ক্ষেত্রে করোনায় মৃতের পরিজনদের সরকারের তরফে খবর দেওয়া হয়নি এবং তাঁরা নিকটজনের শেষ দেখা পাননি। অবশ্য দিল্লি পরিস্থিতি নিয়েই সর্বোচ্চ আদালত সবচেয়ে ক্ষুব্ধ। আদালতের মন্তব্য, কোভিড-১৯ আক্রান্তদের পশুদের চেয়েও খারাপভাবে চিকিৎসা করা হচ্ছে। জঞ্জালে মৃতদেহ মেলার ঘটনাও ঘটেছে। আদালত জানিয়েছে, অনেক ক্ষেত্রেই আইসিএমআরের নির্দেশিকাও মানা হচ্ছে না। সম্প্রতি রাজধানী দিল্লিতে করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরীক্ষার হার কমা নিয়েও এ দিন প্রশ্ন তুলেছে কোর্ট। জানতে চেয়েছে, চেন্নাই এবং মুম্বই যদি দৈনিক পরীক্ষার সংখ্যা ১৬ হাজার থেকে বাড়িয়ে ১৭ হাজার করতে পারে, দিল্লিতে কেন তা সাত হাজার থেকে কমে পাঁচ হাজার হয়েছে ? দিল্লির হাসপাতালগুলিতে আক্রান্তদের চিকিৎসা এবং করোনায় মৃতদের লাশের প্রতি অসংবেদী আচরণ নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আদালত। এদিন শুনানি চলাকালীন সলিসিটর জেনারেল তুষার মেটা স্বীকার করে নিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতি নিয়ে যে সব ছবি সামনে এসেছে তার অনেকগুলি খুবই ভয়াবহ। মহারাষ্ট্র এবং তামিলনাডুর পরে রাজধানী দিল্লিতেই কোভিড-১৯ আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের হিসেব অনুযায়ী দিল্লিতে এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩৪,৬৮৭। মৃত্যু হয়েছে ১,০৮৫ জনের। অন্যদিকে, মহারাষ্ট্রে ৯৪,০৪১ এবং তামিলনাডুতে ৩৬,৮৪১ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। পশ্চিমবঙ্গে আক্রান্তের সংখ্যা ৯,৭৬৮ জন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Mahmud
১২ জুন ২০২০, শুক্রবার, ১০:৩৮

করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা সেবা অভূতপূর্ব : সুপ্রিম কোর্ট (বাংলাদেশ)

জামশেদ পাটোয়ারী
১২ জুন ২০২০, শুক্রবার, ১০:৩২

দেশের প্রতিটি মানুষ জানে দেশের স্বাস্থ্য খাতের বর্তমান অবস্থা। কোর্ট জানলো অনেক দেরীতে। দেশের মানুষ জানতে চায় এই অবস্থায় কোর্টের করণীয় কিছু আছে কিনা।

অন্যান্য খবর