× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১২ আগস্ট ২০২০, বুধবার

ভারতীয় দূতাবাসের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ নেপালি প্রধানমন্ত্রীর

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৩০ জুন ২০২০, মঙ্গলবার, ৯:১৩

নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলি অভিযোগ করেছেন, তার সরকারকে হটাতে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ভারতীয় দূতাবাস। নেপালের কম্যুনিস্ট নেতা মদন ভান্ডারির জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সরাসরি এই মন্তব্য করেন ওলি। এ খবর দিয়েছে দ্য হিন্দু। খবরে বলা হয়, অনুষ্ঠানে নেপালি ভাষায় ওলি বলেন, ‘দেশের নতুন মানচিত্র প্রকাশ করা ও পার্লামেন্টের মাধ্যমে এই মানচিত্র গৃহীত হওয়ায় আমাকে উৎখাত করার ষড়যন্ত্র চলছে।’
তিনি আরও বলেন, ‘চলমান বুদ্ধিবৃত্তিক আলোচনা, নয়াদিল্লি থেকে আসা পত্রিকার খবর আর [ভারতীয়] দূতাবাসের কর্মকাণ্ড ও কাঠমান্ডুর বিভিন্ন হোটেলে বৈঠক থেকে এটি বোজগা দুষ্কর নয় যে, কিছু লোক প্রকাশ্যে আমাকে উৎখাতে সক্রিয় হয়ে উঠেছে। কিন্তু তারা সফল হবে না।’
নেপালের আরেক পত্রিকা জানায়, নেপালের প্রধানমন্ত্রী ভারতের সংবাদমাধ্যম, বুদ্ধিজীবী ও সরকারের বিরুদ্ধে নেপাল সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র করার অভিযোগ করেন।
তিনি বলেন, ‘দিল্লির মিডিয়ার কথা শুনুন। সেখান থেকেই এসব বোঝা যায়। এখানে অনেক হোটেলে কী চলছে, দেখুন। ভারতীয় দূতাবাসের সক্রিয়তা দেখুন।’
তিনি বলেন, ‘আমরা আমাদের রাজনৈতিক মানচিত্র সংশোধন করেছি।
সাংবিধানিক রূপ দিয়েছি। আপনারা হয়তো শুনেছেন যে নেপালের প্রধানমন্ত্রীকে এক সপ্তাহ বা ১৫ দিনের মধ্যে সরিয়ে দেওয়া হবে। আপনারা ভারতীয় মিডিয়া, বুদ্ধিজীবীদের কথাবার্তা শুনেছেন। ভারতীয় রাষ্ট্রীয় সংস্থাগুলো আশ্চর্য্যজনকভাবে সক্রিয় উঠেছে এখানে।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর