× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৩ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার

সিরাজগঞ্জে ধসে গেছে ৭০ মিটার বাঁধ

বাংলারজমিন

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি | ২ জুলাই ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১১:৩৬

সিরাজগঞ্জ সদরে যমুনা নদীর পানির প্রবল স্রোতে একটি বাধের ৭০ মিটার নদীতে ধসে গেছে। এ কারনে বাধ অভ্যন্তরের পাচঠাকুরী এলাকার প্রায় ৫০টি বসতবাড়ি নদীতে বিলীনের আশংকায় অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

বুধবার রাত ১০টার দিকে সদর উপজেলার ছোনগাছা ইউনিয়নের শিমলা এলাকায় অবস্থিত স্পার বাধের ৭০মিটার ধসে যায় বলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল আলম জানান।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তিনি বলেন, ধস এখনও অব্যাহত রয়েছে। তবে ধস ঠেকাতে পাউবো এখনও কোন ব্যবস্থা নেয়নি। ধসের মুখে পড়ায় ইতোমধ্যে পাচঠাকুরী এলাকার প্রায় ৫০টি বসতবাড়ি নদীতে চলে যাওয়ার আশংকায় অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে। আশংকায় রয়েছে আরও বেশকিছু বসতবাড়ি। বাধ ধসের কারনে এসব এলাকার মানুষের মধ্যে আতংক দেখা দিয়েছে।


ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরকার অসিম কুমার জানান, বাধ ধসের কারনে ইতোমধ্যেই ৫০টি বসতবাড়ি নদীতে চলে যাওয়ার আশংকায় অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে তাদের ত্রান সহায়তা দেয়া হবে।

২০০০-২০০১ অর্থ বছরে ভাঙ্গন এড়াতে যমুনার গতিপথ পরিবর্তনের লক্ষ্যে শিমলা এলাকায় এ মাটির তৈরী স্পার বাঁধটি নির্মাণ করা হয়। এরপর বেশ কয়েকবার স্পারটি সংস্কারও করা হয়েছে। চলতি বছরের ৩০ মে যমুনা নদীতে পানি বৃদ্ধির কারণে স্পার বাঁধের স্যাংক (স্পারের মাটির অংশ) প্রায় ২১ মিটার ধসে গিয়েছিল। সেখানে বালিভর্তি জিওব্যাগ দিয়ে সংস্কার করা হয়। এ অবস্থায় বুধবার রাতে পূর্বের সংস্কার করা স্থানসহ আবারও ৭০ মিটার বাধ ধসে গেছে।

সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী একেএম রফিকুল ইসলাম জানান, সম্প্রতি সংস্কার করা স্থানসহ বাধের মাটির অংশের প্রায় ৭০মিটার নদীতে ধসে গেছে। আমরা ধসে যাওয়া স্থানে জিওব্যাগ ফেলে সংস্কারের উদ্দ্যোগ নিয়েছি। আজই দ্রুত সময়ের মধ্যে কাজ শুরু করা হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর