× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার

বেনাপোল বন্দরে ভারতীয় পণ্য আমদানি বন্ধ

বাংলারজমিন

বেনাপোল প্রতিনিধি | ২ জুলাই ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৭:২২

ভারত বাংলাদেশি রপ্তানি পণ্য গ্রহণ না করার প্রতিবাদে গতকাল দ্বিতীয় দিনের মতো বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতীয় পণ্য আমদানি বন্ধ করে দিয়েছে বন্দর ব্যবহারকারী সংগঠনগুলো। ফলে বেনাপোল বন্দরে প্রবেশের অপেক্ষায় শত শত পণ্য বোঝাই ট্রাক আটকাপড়ে আছে বেনাপোলের ওপারে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে। বেনাপোল বন্দর ব্যবহারকারী ৫টি সংগঠন, বাংলাদেশি রপ্তানি পণ্য গ্রহণ না করা পর্যন্ত ভারত থেকে সব ধরনের পণ্য আমদানি বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে। ফলে গত ৩ মাসে ভারতের সঙ্গে রপ্তানি বাণিজ্য ঘাটতি দেখা দিয়েছে ২ হাজার কোটি টাকা। বেনাপোল বন্দরে আটকা পড়েছে ৫০০ ট্রাক রপ্তানি বোঝাই পণ্য। গত তিন মাস ধরে এসব ট্রাক আটকে আছে বেনাপোল বন্দরে। দীর্ঘ ৩ মাস বন্ধ থাকার পর গত ৭ই জুন বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি বাণিজ্য চালু হলেও বাংলাদেশি রপ্তানি পণ্য গ্রহণ করতে অনীহা প্রকাশ করে ভারত। ভারত সরকার ও সেদেশের ব্যবসায়ীরা ভারতীয় পণ্য বাংলাদেশে রপ্তানির অনুমতি দিলেও বাংলাদেশি রপ্তানি পণ্য ভারতে প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছে না।
বেনাপোল চেকপোস্ট এলাকায় রপ্তানি পণ্যের গাড়ি দাঁড়িয়ে থাকায় তৈরি পোশাক, গার্মেন্ট পণ্য ও পাটজাত বিভিন্ন পণ্য থাকায় রোদ-বৃষ্টিতে ভিজেপুড়ে নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের সভাপতি আলহাজ মফিজুর রহমান সজন জানান, ভারত আমদানি পণ্য দিলেও তারা বাংলাদেশি রপ্তানি পণ্য গ্রহণ করছেন না। ফলে বন্দর ব্যবহারকারী ৫টি সংগঠন ভারত থেকে আসা আমদানি বাণিজ্য বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে। গতকাল সকাল সাড়ে ১১টায় চলমান পরিস্থিতি নিয়ে বেনাপোল বন্দর ব্যবহারকারী সংগঠনগুলো স্থানীয় সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশন মিলনায়তনে জরুরি সভায় মিলিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন। ফলে আজো ভারত থেকে কোনো আমদানি পণ্য বাংলাদেশে প্রবেশ করেনি। বাংলাদেশি রপ্তানি পণ্য ভারতে ঢুকতে না পেরে মোটা অঙ্কের ট্রাক ডেমারেজ গুনতে হচ্ছে বাংলাদেশি রপ্তানিকারকদের। বেনাপোল কাস্টমসের সহকারী কমিশনার আকরাম হোসেন জানান, গতকাল দ্বিতীয় দিনের মতো আমদানি বাণিজ্য বন্ধ রয়েছে ভারত থেকে। বন্দর ব্যবহারকারী সংগঠনগুলো বাংলাদেশি রপ্তানি পণ্য গ্রহণ না করার প্রতিবাদে গতকাল থেকে ভারতীয় পণ্য আমদানি বন্ধ করে দেয়। তবে বেনাপোল বন্দর ও কাস্টমস হাউজে কাজকর্ম চলছে স্বাভাবিক ভাবে।
বেনাপোল বন্দরের ডাইরেক্টর মামুন কবীর তরফদার জানান, বাংলাদেশি রপ্তানি পণ্য ভারত গ্রহণ না করার প্রতিবাদে বাংলাদেশি বন্দর ব্যবহারকারী বিভিন্ন সংগঠন গতকাল থেকে ভারতীয় পণ্য আমদানি বন্ধ করে দিয়েছে। ফলে গত ২ দিন ধরে পণ্য আমদানি বন্ধ রয়েছে। তবে বন্দরে কাজকর্ম স্বাভাবিক রয়েছে। বন্দর থেকে পণ্য ডেলিভারি অব্যাহত আছে। ওপারে শত শত আমদানি পণ্য বোঝাই ট্রাক আটকে আছে যত্রতত্র। বেনাপোল বন্দর এলাকায় ৪-৫শ’ রপ্তানি পণ্য বোঝাই ট্রাক আটকে আছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর