× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৩ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার

সেনবাগে ভূমিহীন প্রতিবন্ধী পরিবারকে জায়গা দিলো উপজেলা প্রশাসন

বাংলারজমিন

সেনবাগ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি | ২ জুলাই ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৭:২৪

সেনবাগের কাবিলপুর ইউনিয়নের পূর্বইয়ারপুরে ভূমিহীন আবুল খায়ের (৭০) ও তার অসহায় পরিবার কে মাথাগোঁজার ঠাই করে দিলেন উপজেলা প্রশাসন। জেলা প্রশাসক তম্ময় দাসের নির্দেশনায় বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: সাইফুল ইসলাম মজুমদার ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) ক্ষেমালিকা চাকমা ৩৪৪ নং ইয়ারপুর মৌজার ৮৩৮৬ দাগে আনুষ্ঠানিক ভাবে ৬ শতাংশ জায়গার দলিল ওই পরিবারের হাতে তুলে দিয়েছেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কাবিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: আনোয়ার হোসেন বাহার, ইয়ারপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ উল্যা বিএসসি,সেনবাগ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক এম এ আউয়াল, এডভোকেট জহির উদ্দিন সবুজ, সাংবাদিক মো: হারুন, ইউপি সদস্য মো: মানিক, ইউনিয়ন ভূমি অফিসের স্টাফ সহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।
ভূমিহীন পরিবারের পাশে দাঁড়ানো এডভোকেট সবুজ গনমাধ্যমকে জানান, ইয়ারপুরের ভূমিহীন বয়োবৃদ্ধ আবুল খায়ের স্ত্রী নুর নাহার তার ৫ সন্তানকে নিয়ে মানবতের জীবন যাপন করছে। ৪ ছেলে ১ মেয়ের মধ্যে আবুল কাসেম (২৫) ও আবুল হাসেম (২৩) দুই ভাই বাক প্রতিবন্ধী। মানুষের বাড়ী বাড়ী কাজ করে কখনো কাছারিঘর বা কখনো বারান্দায় রাত্রি যাপন করতো পরিবারটি। কোন সময় অনাহারে অর্ধাহারে থাকলেও টয়লেট সুবিধা পেতোনা পরিবারটি। এডভোকেট সবুজের সহায়তায় বৃদ্ধ আবুল খায়ের জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করলে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ক্ষেমালিকা চাকমা সরেজমিন পরিদর্শন করে সরকারী খাসখতিয়ানভূক্ত ৬ শতাংশ জায়গা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমোদন ক্রমে ভূমিহীন পরিবারটির পাশে দাঁড়িয়ে নজির সৃষ্টি করলেন ।
ভূমিহীন পরিবারকে জায়গার দলিল হস্তান্তর করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: সাইফুল ইসলাম মজুমদার জানান,সরকার অসহায় মানুষের জন্য বিনামূল্যে ঘর নির্মান করে দিচ্ছে। সেনবাগ উপজেলায় আশ্রায়ন প্রকল্পের আওতায় সহাস্রাধিক ঘর অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে।
ঘর নির্মান সহ বিভিন্ন ভাতা অনুমোদনে কাউকে ঘুষ না দিতে তিনি সকলের প্রতি আহবান জানান। ভূমিহীন বৃদ্ধ আবুল খায়ের ও স্ত্রী নুর নাহার ৬ শতাংশ জায়গার দখল বুঝিয়ে নিয়ে আনন্দে আত্মহারা হন। এক পর্যায়ে দুচোখ পানি গড়িয়ে তিনি সরকার সহ উপস্থিত সকলের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর