× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৭ আগস্ট ২০২০, শুক্রবার

'কোরবানির একটি পশুও আমদানি করা হবে না'

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ১১ জুলাই ২০২০, শনিবার, ৪:১২

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, দেশের খামারিরা চমৎকার গবাদিপশু উৎপাদন করছেন।বাজারে যা দরকার তার চেয়ে বেশি উৎপাদন রয়েছে। এবছর বিদেশ থেকে একটা পশুও আমদানি করা হবে না। কুরবানির জন্য যে পরিমাণ গবাদিপশুর সরবরাহ দরকার তা দেশেই রয়েছে।

আজ শনিবার দুপুরে রাজধানীর বেইলি রোডস্থ সরকারি বাসভবন থেকে অনলাইনে সংযুক্ত হয়ে কুরবানির গবাদিপশু বিপণনের অনলাইন প্লাটফর্ম ‘ডিএনসিসি ডিজিটাল হাট’-এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে জীবন ও জীবিকা চালিয়ে রাখার জন্য প্রধানমন্ত্রীর দিক-নির্দেশনায় আমরা সবাই মিলে কাজ করে যাচ্ছি। কুরবানিকে সামনে রেখে রোগা ও কুরবানির অনুপযুক্ত পশু বিক্রি বন্ধে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ভেটেরিনারি মেডিকেল টিম কাজ করবে।গবাদিপশুর বাজারগুলোতে মেডিকেল টিম কাজ করবে, যাতে রোগা পশু বাজারে আসতে না পারে। এ লক্ষ্যে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে মনিটরিং টিমও কাজ করবে।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশী, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, ঢাকার বিভাগীয় কমিশনার মুস্তাফিজুর রহমান, এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম প্রমুখ অনলাইনে যুক্ত ছিলেন।।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
রফিকুলইসলাম
১১ জুলাই ২০২০, শনিবার, ৮:৫১

বাংলাদেশের মন্ত্রী -----আপনাদের এধরণের আদেশ নির্দেশ কোথাও পালিত হয় না !!! না দেশ না পাশ্ববর্তী দেশ। পাশ্ববর্তী দেশ এ বিষয় গুুলোর উপর একচ্ছত্র আধিপত্য ধারাবাহিক বজায় রাখে। বৃৃদ্ধাংগুলি দেখায়।

Professor Dr.Mohamme
১১ জুলাই ২০২০, শনিবার, ৯:৪৭

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, এবছর বিদেশ থেকে একটা পশুও আমদানি করা হবে না। What an extraordinary mews for us! I have had the opportunity to work with the Ministry of Fisheries and Livestock since 1972. However, never had this kind of message before. Hope, he will never yield to pressure from any vested group and save our beef industry. I can sense a shift of paradigm and under his dynamic leadership, we may eat what we produce and as a result, we will produce what we eat. Furthermore, banning livestock import from abroad may pave the way to develop our beef industry and in a very short period of time, we can create thousands of jobs for those who will be made redundant due to COVID-19. We have our internal market which is huge due to our eating habit of beef.

Mazed
১১ জুলাই ২০২০, শনিবার, ৬:৩০

পশু নিয়ে চিন্তা না করে পশুর চামড়া কি করবেন সেটা নিয়ে ভাবুন ।কারন এবার চাহিদার চেয়ে অতিরিক্ত পশু বিদ্যমান যা ইতিমধ্যে পত্রিকা মারফত জনগণ জেনেছেন।

Md. Saidur Rahman Mo
১১ জুলাই ২০২০, শনিবার, ৬:০০

right decision

অন্যান্য খবর