× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, বুধবার

অন্তর্বাসের জন্য মামলা

এক্সক্লুসিভ

মানবজমিন ডেস্ক | ২২ জুলাই ২০২০, বুধবার, ৭:৩৭

উদ্ভট এক ঘটনা। অন্তর্বাস নিয়ে এক দর্জির বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে ভারতের ভুপালে। কৃষ্ণ কুমার দুবে নামে এক ব্যক্তি এক দর্জির কাছে কাপড় কিনে অন্তর্বাস বানাতে দিয়েছিলেন। তার দাবি অনুযায়ী, পর্যাপ্ত কাপড় দেয়া সত্ত্বেও ওই দর্জি প্রত্যাশার চেয়ে অনেক ছোট করে একটি অন্তর্বাস বানিয়ে দিয়েছেন তাকে। এ কারণে তিনি ওই দর্জির নামে মামলা করেছেন। এর কারণ, কৃষ্ণ কুমার দুবে করোনাভাইরাসের কারণে তার কাজ হারিয়েছেন। ভুগছেন প্রচণ্ড অর্থকষ্টে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন গালফ নিউজ।
এতে বলা হয়, প্রত্যাশা অনুযায়ী অন্তর্বাস না পেয়ে কৃষ্ণ কুমার দুবে বৃহস্পতিবার পুলিশ স্টেশনে যান। সেখানে অভিযোগ দেন। বলেন, দুই মিটার কাপড় দেয়া সত্ত্বেও ওই দর্জি তাকে আকারে অনেক ছোট দুটি বক্সার শর্টস বানিয়ে দিয়েছেন। ৪৬ বছর বয়সী কৃষ্ণ কুমার দুবে পুলিশে বলেন, আমি ওই দর্জিকে আমার অন্তর্বাস সেলাই করে দিতে দুই মিটার কাপড় দিয়েছি। কিন্তু তিনি আমাকে অনেক ছোট অন্তর্বাস বানিয়ে দিয়েছেন। আমি তাকে সেটা খুলে নতুন করে বানিয়ে দিতে বলেছি। কিন্তু তিনি আমার সেই অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেছেন। এ বিষয়ক একটি ভিডিও এবং মামলা করার ছবি টুইটারে বহুবার শেয়ার দেয়া হয়েছে। মিডিয়ার কাছে কৃষ্ণ কুমার দুবে বলেছেন, অন্তর্বাস সেলাই করে দিতে ওই দর্জি আমার কাছ থেকে ৭০ রুপি নিয়েছেন। পরে তিনি আমাকে অনেক ছোট অন্তর্বাস দিয়েছেন। একজন নিরাপত্তা প্রহরী হিসেবে চাকরি করতেন কৃষ্ণ কুমার দুবে। কিন্তু করোনা মহামারির কারণে সেই চাকরি হারিয়েছেন। এখন বেঁচে থাকার জন্য সংগ্রাম করছেন। সম্প্রতি নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনতে এক বন্ধুর কাছ থেকে এক হাজার রুপি ধার করেছেন। সেই অর্থে তিনি ওই কাপড় কিনেছিলেন। তার অভিযোগ পুলিশ গ্রহণ করে তাকে স্থানীয় আদালতে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে পুলিশ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর