× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, বুধবার

সোনাগাজীতে ধর্ষণের অভিযোগে অটোরিকশা চালক গ্রেপ্তার

বাংলারজমিন

ফেনী প্রতিনিধি | ৬ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১০:২০

ফেনীর সোনাগাজীতে ধর্ষণের অভিযোগে মো. তারেকুল ইসলাম (২৫) নামে এক সিএনজি অটোরিকশা চালককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে অভিযুক্ত তারেকুলকে উপজেলার মির্জাপুর এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে ওই এলাকার মিজানুর রহমানের ছেলে।

সরকার মামলার এজহারের বরাত দিয়ে সোনাগাজী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আবদুর রহিম জানায়, ধর্ষণের শিকার ওই নারী ফেনী শহর এলাকার বাসিন্দা। তিনি বাড়ি বাড়ি ফেরি করে কসমেটিকস সামগ্রী বিক্রি করেন। গত কয়েকদিন আগে ফেনী থেকে অটোরিকশা যোগে সোনাগাজী আসার পথে অটোরিক্সা চালক তারেকুল ইসলামের সঙ্গে তার পরিচয় হয়।

সেই সূত্রে গত সোমবার রাতে তারেকুল মুঠোফোনে ওই নারীকে মঙ্গলবার সকালে ফেরি করতে বের হলে এক সঙ্গে নাস্তা খাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। মঙ্গলবার সকালে ওই নারী বাড়ি থেকে বের হয়ে ফেনী শহরের দাউদপুর এলাকায় আসলে তারেকুল তাকে অটোরিকশায় তুলে লালপুল এলাকায় নিয়ে যায়। সেখানে থেকে জিম্মি করে তাকে সোনাগাজী উপজেলার দক্ষিণ মঙ্গলকান্দি এলাকায় নিয়ে যায়।
ওই এলাকায় চালক তারেক ও তার বন্ধু বেলাল তাকে অটোরিক্সার ভেতরে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এতে নারীটি অচেতন হয়ে পড়লে তারা তাকে উপজেলার মতিগঞ্জ বাস স্ট্যান্ড এলাকায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় তিনি ফেনীর বাসায় গিয়ে পরিবারের সদস্যদের বিষয়টি জানান।

পুলিশ পরিদর্শক আরো জানায়, এঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে তারেকুল ইসলাম (২৫) ও তার সহযোগী মো. বেলালকে (২৯) আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে উপজেলার মির্জাপুর এলাকা থেকে অভিযুক্ত তারেকুলকে গ্রেপ্তার করে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে প্রাথমিকভাবে তারেক ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে।

পরিদর্শক মো. আবদুর রহিম সরকার জানান, বুধবার ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ওই নারীর শারীরিক পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। মামলার অপর আসামী বেলালকেও গ্রেপ্তারে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর