× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, শুক্রবার

বানিয়াচংয়ে মাদকের টাকা না দেয়ায় মাকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

বাংলারজমিন

বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি | ৬ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৬:৪৫

বানিয়াচংয়ে মাদকের টাকার যোগান দিতে না পারায় গর্ভধারিণী মাকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে কুলাঙ্গারপুত্র ছাদী মিয়া (১৯)। এসময় বানিয়াচং থানার টহল পুলিশ তাকে হাতেনাতে ধরে ফেলায় প্রাণেরক্ষা পান মা মুর্শেদা খাতুন। পরে এসিল্যান্ড ইফফাত আরা জামান ঊর্মি’র ভ্রাম্যমাণ আদালতে কুলাঙ্গার ছাদীকে ৬ মাসের কারাদ-সহ ৫শ টাকা জরিমানা করা হয়। গত বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় স্থানীয় ২নং বানিয়াচং উত্তর-পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে তিনি এ সাজা দেন। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে বানিয়াচং থানা পুলিশ, বানিয়াচং প্রেসক্লাবের ২০২১-২২ সেশনের সভাপতি ইমদাদুল হোসন খানসহ এলাকার শত শত মানুষ ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সে উপস্থিত ছিলেন। জানা যায়, উপজেলা সদরের গরীব হোসেন মহল্লা গ্রামের মোঃ চনু মিয়ার বখে যাওয়া পুত্র ছাদী নেশার টাকার জন্য প্রায়ই মাকে জ্বালাতন করে। টাকা-পয়সা না দিলেই ঘরের জিনিসপত্র ভাঙচুরসহ মাকে শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করে। বুধবার সকাল ১০টার দিকেও নেশাদ্রব্য ক্রয়ের জন্য এক হাজার টাকা দিতে মাকে চাপ প্রয়োগ করে।
মা অপারগতা প্রকাশ করলে দা নিয়ে মায়ের দিকে তেড়ে যায়। এসময় প্রতিবেশীরা এগিয়ে গিয়ে কুলাঙ্গার পুত্রের হাত থেকে মাকে রক্ষা করেন। পরে মা থানায় গিয়ে পুত্রের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তারে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায়। সন্ধ্যার দিকে কুলাঙ্গার ছাদী পুনরায় বাড়ীতে গিয়ে দা দিয়ে মাকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালানোর সময় বানিয়াচং থানার টহল পুলিশ তাকে হাতেনাতে ধরে ফেলে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর