× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার
স্মরণ সভায় বক্তারা

মাহবুব আলী খাঁন সততা, সাহস ও দেশপ্রেমের প্রেরণা

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ৮ আগস্ট ২০২০, শনিবার, ৭:২৭

বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্য দিয়ে সাবেক মন্ত্রী ও নৌবাহিনীর প্রধান রিয়ার অ্যাডমিরাল মাহবুব আলী খানের ৩৬তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে ৬ আগস্ট বৃহস্পতিবার সুরভী এবং মাহবুব আলী খাঁন ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যেগে ভার্চুয়াল স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। মরহুমের জামাতা ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও মরহুমের কনিষ্ঠ কন্যা ডা. জুবাইদা রহমানের উপস্থিতিতে দোয়া ও স্মরণসভায় প্রধান অথিতির বক্তব্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, সততা, সাহস ও দেশপ্রেম এই তিন গুণের অধিকারী ছিলেন মাহবুব আলী খান। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বলিষ্ঠ নেতৃত্বে তালপট্টি দ্বীপ ও জাতিসংগের মাধ্যমে গঙ্গার পানির ন্যায্য হিস্যা পেতে তৎকালীন নৌবাহিনীর প্রধান হিসেবে এম এ খানের সাহসী ভূমিকা জাতি চিরকাল স্মরণে রাখবে। পারিবারিক ঐতিহ্য, শিক্ষা ও রাজনীতির ক্ষেত্রে তাদের গোটা পরিবার অনেক উচ্চ আসনে আসীন ছিলেন। মাহবুব আলী খানের কর্মজীবনেও এর প্রতিফলন ঘটেছে।
তিনি আরও বলেন, আজকে জাতির সংকট হলো, সৎ মানুষের অভাব, সৎ রাজনীতিবিদের অভাব। মিথ্যাচার এখন সত্যাচারে পরিণত হয়েছে। মিথ্যাচারের সংস্কৃতি বাংলাদেশের রাজনীতিতে প্রকট আকার ধারণ করেছে।
বাংলাদেশে আজ সততা ও দেশপ্রেমের অভাবের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন প্রতিবাদ করার শক্তি যেন আমরা হারিয়ে না ফেলি। শত প্রতিকূলতা স্বত্তেও অন্যায় অবিচারের বিরুদ্বে এবং গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের লড়াইয়ে সবাইকে ঐক্যবদ্বভাবে আন্দোলনের জন্য তৈরী থাকতে হবে।
দলের অন্যতম এই নীতিনির্ধারক বলেন, ক্ষমতাসীনরা রাজনীতিতে পারস্পরিক সম্মান ও সহনশীলতাকে নিশ্চিহ্ন করে দিয়েছে। বিএনপির চেয়ারপারসন, তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী উল্লেখ করে তিনি বলেন রাজনৌতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মিথ্যা মামলায় তাঁকে সাজা দেয়া হয়েছে। বেগম খালেদা জিয়াকে এতো হয়রানির করার পরেও তিনি মানসিকভাবে শক্ত রয়েছেন। তবে তিনি শারীরিকভাবে দুর্বল। তাঁর উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন। সারা দেশের মানুষ খালেদা জিয়া, তারেক রহমান ও বিএনপির দিকে তাকিয়ে আছে, কখন গণতন্ত্র, আইনের শাসন, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ফিরে আসবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম বলেন, মরহুম এম এ খান বার বার সাহস ও দেশপ্রেমের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ একজন বীর সেনাপতি ছিলেন। মুক্তিযুদ্বে শহীদ জিয়ার নেতৃত্বে রণাঙ্গনের এই যোদ্ধা বলেন, আজকে যারা দেশ শাসন করছেন, যারা বাহিনী পরিচালনা করছেন কলিজায় সেই সাহস আছে কিনা আমরা সবাই জানি।
তিনি বলেন, মাহবুব আলী খানের গোটা পরিবারটি নিভৃতচারী ও প্রচার বিমুখ। এম এ খানের সুযোগ্য সহধর্মিনী চ্যারিটেবল সংগঠন সুরভী'র মাধ্যমে দেশের অসংখ্য হতদরিদ্র শিশুদের শিক্ষার আলোয় আলোকিত করছেন । হতদরিদ্র ও বস্তিতে বসবাসকারী মানুষদের কল্যানে তাদের নিজস্ব সম্পদ দিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। এই পরিবারের একটিই মূলমন্ত্র তাহলো দেশের জন্য কাজ করা। তিনি বলেন এই পরিবারটি আড়ালে কাজ করে আনন্দ অনুভব করলেও জাতির স্বার্থে উনাদের পাদপ্রদীপে আনতে হবে।
স্মরণ সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে সাবেক বিমানবাহিনীর প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল আলতাফ হোসাইন চৌধুরীসহ অন্যান্যদের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা কাউন্সিলের সদস্য খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, সিলেটের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এম এ মালিক, বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এ সালাম ও মদন মোহন কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আতাউর রহমান পীর। পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত এবং দোয়া পরিচালনা করেন বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ আবু সায়ীদ আনসারী।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর