× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার প্রখ্যাত আলেম মনিরুজ্জামান সিরাজী আর নেই

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে | ৯ আগস্ট ২০২০, রবিবার, ৪:৩২

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার প্রখ্যাত আলেম ভাদুঘর জামিয়া সিরাজীয়া দারুল উলুম মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল ও শায়খুল হাদিস আল্লামা মনিরুজ্জামান সিরাজী ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি ..রাজিউন)। রোববার দুপুর ১২টায় শহরের ভাদুঘরে নিজ বাস ভবনে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভোগছিলেন মনিরুজ্জামান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৩ বছর। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সর্বজন শ্রদ্ধেয় বড় হুজুর হযরত মাওলানা সিরাজুল ইসলামের জ্যেষ্ঠ সন্তান মনিরুজ্জামান পিতার মতোই সকলের প্রিয় ও শ্রদ্ধাভাজন ছিলেন।  পিতার পর বড়হুজুর হিসেবে তাকে বিবেচনা করা হতো। তার মৃত্যুতে সবমহলে শোকের ছায়া নেমে আসে। জেলা প্রশাসক হায়াত উদ-দোলা খাঁন, পুলিশ সুপার মো: আনিসুর রহমান, জেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার ও জেলা বিএনপি নেতৃবৃন্দসহ নানা শ্রেনী পেশার মানুষ মরহুমের বাস ভবনে ছুটে যান।
তিনি ছিলেন হেফাজতে ইসলাম ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সভাপতি এবং ইসলামী আইন বাস্তবায়ন কমিটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার আমীর। ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ দেশের বিভিন্নস্থানে ওয়াজ মাহফিল ও পবিত্র কোরআন তফসিরে বয়ান করতেন মনিরুজ্জামান। মরহুমের জানাজার নামাজ প্রথমে জেলা ঈদগাহ মাঠে করার ঘোষনা দেয়া হলেও করোনা পরিস্থিতির কারনে পরে বাদ আছর ভাদুঘর জামিয়া সিরাজীয়া দারুল উলুম মাদ্রাসায় সম্পন্ন হয়। পরে ভাদুঘরেই দাফন করা হয়। মৃত্যুকালে স্ত্রী, ১ ছেলে ও ৩ মেয়েসহ অসংখ্য আত্বীয় স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন তিনি। মনিরুজ্জামান সিরাজীর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের আহবায়ক খ আ ম রশিদুল ইসলাম ও সদস্য সচিব দীপক চৌধুরী বাপ্পী।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর